fbpx

২০১৯ বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ ভিউয়ের রেকর্ড

নিউজ ক্রিকেট ২৪ ডেস্ক »

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ক্রিকেটের সবচেয়ে জনপ্রিয় আসর হচ্ছে আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ। ১৯৭৫ সাল থেকে চলে আসছে এই বিশ্বকাপ। এই বিশ্বকাপ দেখার জন্য ক্রিকেট প্রেমীদের অপেক্ষা করতে হয় ৪ বছর ধরে। একটা সময় বিশ্বকাপ মানুষ টিভি না থাকায় শুনছো হতো রেডিওতে। আর টিভি থাকলেও তা সবার সাধ্যের মধ্যে ছিলো না। এরপর টিভি সকলের হাতের মুঠোয় এসে যায়। কিন্তু বর্তমানে ইন্টারনেট স্মার্টফোনের যুগে কেউ আর টেলিভিশন কেন্দ্রীক নয়। সকলে ইন্টারনেটে ডু মারে। তাই এখন সোশ্যাল মিডিয়া একটি বড় মাধ্যমে পরিণত হয়েছে এই বিনোদনের।

২০১৯ আইসিসি বিশ্বকাপ ৩০শে মে থেকে শুরু হয়ে শেষ হয়েছে ১৪ জুলাই। এবারের বিশ্বকাপ দর্শকদের পছন্দে থাকার রেকর্ড গড়েছে। আইসিসি তাদের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে যে এবারের বিশ্বকাপে তাদের ভিডিও কন্টেস্টে সবমিলিয়ে ৪৬০ কোটি ভিউয়ের রেকর্ড গড়েছে। এই রেকর্ড যা আইসিসির অন্যান্য সকল আসরের চেয়ে বেশি।

এই ৪৬০ কোটি ভিউয়ের মধ্যে আইসিসির নিজস্ব চ্যানেল দিয়ে সরাসরি ভিউ হয়েছে ৩৬০ কোটি বার এবং সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম দিয়ে আইসিসির প্ল্যাটফর্মে দেখা হয়েছে আরো ১০০ কোটি বার। এছাড়া ফেসবুক ও ইউটিউবে আইসিসির যে ভিডিও পোস্ট করা হয়েছিল তা দেখা হয়েছে ৩৫০ কোটি মিনিট। বিখ্যাত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটার ও ইনস্টাগ্রামে দেখা হয়েছে ৩০ লাখ বার। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে টূর্ণামেন্টের কন্টেন্ট গুলোতে ১০০০ কোটি বার প্রতিক্রিয়া দেয়া হয়েছে এবং সংযুক্তি হয়েছে ৬ কোটি ৮০ লাখ। আর টুইটারে ৩ কোটি ১০ লাখ বিশ্বকাপের হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করা হয়েছে।

আইসিসির টুইটারে সবচেয়ে বেশি ভিউ হওয়া ভিডিও হচ্ছে ভারত-অষ্ট্রেলিয়া ম্যাচে আজি ব্যাটসম্যান স্টিভ স্মিথকে সম্মান দেখানোর জন্য ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলির আহ্বানের সেই মুহূর্তটি। এবারের বিশ্বকাপেও সবচেয়ে বেশি দেখা ম্যাচ হয়েছে বরাবরের মতো ভারত-পাকিস্তান ম্যাচটি। টুইটারে সবচেয়ে বেশি চর্চিত ম্যাচ হয়েছে এই ম্যাচটি ২০ লাখ ৯০ হাজার। এরপর সবচেয়ে বেশি চর্চিত হয়েছে ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার ফাইনাল। এই চর্চিত তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে ভারত ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার সেমি ফাইনাল ম্যাচ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আইসিসির অনেক নতুন ফলোয়ার বৃদ্ধি পেয়েছে যা সংখ্যায় ১ কোটি ৯০ লাখ। এইবারের আসরে আইসিসি সর্বমোট ২২ হাজার ভিডিও কন্টেস্ট প্রকাশ করেছে। যাতে সব মিলিয়ে ৪৮ কোটি ১লাখ সংযুক্তি পেয়েছে আইসিসি বলেছে তার ৬০ শতাংশ এসেছে অন্যতম জনপ্রিয় সোশ্যাল‌ মিডিয়া ইন্সটাগ্রাম থেকে।

আইসিসির নিজস্ব অ্যাপ রয়েছে। এই বিশ্বকাপে এই অ্যাপ দিয়েও অনেক লাভবান হয়েছে। আইসিসির অ্যাপ এবং ওয়েবসাইটে মোট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৭ কোটি ৫ লাখ। আর আইসিসির পেইজে ভিউ ছিলো ২ কোটি ৭২ লাখ। আইসিসির নিজস্ব অ্যাপ ব্যবহার করে ফ্যান্টাসি টিম তৈরি হয়েছে ৪১ লাখের বেশি।

আইসিসি দাবি করেছে যে এবারের আসরের এসব রেকর্ডের সংখ্যা ২০১৫ বিশ্বকাপের চেয়ে ১০০ শতাংশ বেশি। এইবারের বিশ্বকাপ চলাকালীন বিভিন্ন দেশ থেকে গুগল প্লে স্টোরে ও অ্যাপ স্টোরে জনপ্রিয় অ্যাপসের তালিকায় শীর্ষে চলে আসে আইসিসি বিশ্বকাপের অফিসিয়াল অ্যাপসটি। দিন যত বাড়ছে এই সামাজিক যোগাযোগ নির্ভর হয়ে পড়ছে সকল কিছু। আর এই খেলাগুলো এখন মানুষ টেলিভিশনের চেয়ে এই সোশ্যাল মিডিয়াকে বেশি প্রাধান্য দিচ্ছে তা এই রেকর্ড দেখলেই বোঝা যায়। সামনের দিনগুলোতে এই পরিসংখ্যানগুলো আরো বাড়বে বলে আশা করা যায়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »