সৌম্য-সাব্বিরের মন্থর ব্যাটিংকে কাঠগড়ায় দাঁড় করালেন মালান

মমিনুল ইসলাম »

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

রাজশাহী রয়্যালসের দেয়া ১৯১ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের হয়ে ৪৮ বলে অপরাজিত ৮৮ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন সৌম্য সরকার। দীর্ঘ চার বছর পর বিপিএলে অর্ধশতকের দেখা পেলেন সৌম্য। অপরাজিত ৮৮ রানের ইনিংস খেললেও দলকে জেতাতে ব্যর্থ হয়েছেন সৌম্য। খুলনার সাথে এমন হারের কারন হিসেবে মাঝ পথে সৌম্যের ধীরগতির ইনিংসকে দায়ী করেছেন কুমিল্লা।

১৯১ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই চাপে পড়ে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স। ভ্যান জ্যাল ও রবি আশানুরূপ শুরু এনে দিতে পারেনি তারা দুজন। দলীয় ২৯ রানেই হারিয়ে বসে দুই উইকেট আর ৭৫ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে কুমিল্লা। সেই চাপকে জয় করতে গিয়ে ধীরগতির ব্যাটিং করে সৌম্য সাব্বির। ১১,১২,১৩ ও ১৪ তম এই চার ওভারে আসে মাত্র ১৬ রান যেকারনে শেষ দিকে সৌম্যের ঝড়ো ইনিংসও পরাজয় এড়াতে পারেনি।

সৌম্য সাব্বিরের এমন ধীরগতির ব্যাটিংকেই পরাজয়ের কারন হিসেবে দাঁড় করালেন কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের অধিনায়ক ডেভিড মালান। মালান বলেন, ‘ ৯ ওভার যাওয়ার পর আমরা তাদের ১৬০-১৭০ এ আটকে রাখার অবস্থায় ছিলাম। তবে শেষ ৫ ওভারে তারা অনেক রান তুলেছে। যেখানে আমরা পিছিয়ে পড়েছি। ‘

সৌম্য-সাব্বিরের ধীরগতির ব্যাটিং পরাজয়ের কারন কি না এমন প্রশ্নের জবাবে মালান বলেন, ‘কিছুটা। এমন রান তাড়া করতে গেলে আপনাকে ঝড়ো ইনিংসের বিকল্প নেই। আর ঝুঁকি নিতে হবে জিততে হলে। শুরুতে ৫৫-৬০ রান তুলতে হবে যেখানে আমাদের ছিলো ৪৪ রান।’

মালান মনে করেন শেষ ৬ ওভারের ঝড়টা আরও একটু আগে শুরু করলে জয় সম্ভব ছিলো। তিনি বলেন, ‘ বড় রানের ম্যাচ তাড়া করতে নামলে আপনাকে মেরেই খেলতে হবে। প্রতি ওভারে ১০/১১/১২ রান করে নিতে হবে । এক ওভারে ১০ রান নিলে পরের ওভারে ১৪ রান নিয়ে পুষিয়ে দিতে হবে। মাত্র ১৫ রানের কমতি ছিলো যা আর ২ ওভার আগে থেকে মেরে খেলতে শুরু করলে জয় সম্ভব ছিলো। ‘

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »