সৌম্যের ঝড়ো ইনিংসেও শেষ রক্ষা হলোনা কুমিল্লার

সাজিদা জেসমিন »

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ধীরগতিতে করে কুমিল্লার দুই ওপেনার স্টিয়ান এবং রবিউল। দলীয় ২৯রান চলাকালীন রেজার বলে ক্যাচ দিয়ে ফিরেন রবিউল। ক্রিজে আসেন অধিনায়ক ডেভিড মালান। কিন্তু ম্যাচের হাল ধরতে ব্যর্থ হলেন মারকুটে এ-ই ব্যাটসম্যান। রাসেলের বলে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান।

দ্বিতীয় উইকেটের পর একটু একটু করে টার্গেটের দিকে এগিয়ে যেতে থাকে কুমিল্লা। কিন্তু দশম ওভারে স্টিয়ানের আউটের পর আশা কিছুটা ক্ষীণ হয়। ৩উইকেট হারিয়ে তখন ৭৬রান সংগ্রহ কুমিল্লার। টার্গেট স্পর্শ করতে তখনো শতরানের উপরে প্রয়োজন। ৩য় উইকেটের পর ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করে কুমিল্লা। কিন্তু তারপরও হলোনা কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য জয়। ১৮তম ওভারে সাব্বিরের আউটে জুটি ভাঙার পর আর তেমন একটা এগুতে পারেনি কুমিল্লা। ১৭৫ রানে গিয়ে থেমে যায়।

এর আগে ম্যাচের শুরুতে টসে জিতে বোলিং নেন কুমিল্লা দলপতি মালান। ব্যাটিং এ নেমে শুরুটা ভালোই করেন রাজশাহীর ২ ওপেনার লিটন এবং আফিফ। ৫৬রানের পার্টনারশিপ ভাঙে ষষ্ঠ ওভারে লিটন আউট হয়ে ফিরে গেলে। এরপর দুবার জুটি গড়ার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন রাজশাহীর ব্যাটসম্যানরা। ৩য় উইকেটের পর ক্রিজে আসেন রাজশাহীর দলপতি রাসেল। রাসেল – মালিকের ঝড়ো ইনিংসে ১৯০ রানের বড় সংগ্রহ পায় রাজশাহী রয়্যালস।

 

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ড :

রাজশাহী রয়্যালস : ১৯০/৪ (২০ওভার)

মালিক ৬১(৩৮),আফিফ ৪৩(৩০), রাসেল ৩৭(২১)

সৌম্য ১/১৮, সানজামুল ১/২০, মুজিব ১/২৫

কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স : ১৭৫/৪ (২০ওভার)

সৌম্য ৮৮(৪৮), সাব্বির ২৫(২৩)

মালিক ১/১৯, ইরফান ১/২৪

ফলাফল : রাজশাহী ১৫রানে জয়ী৷

  •  
  •  
  •  
  • 0
  •  
  •  
  •   
নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »