সুপার ফোরে যেতে মুস্তাফিজের দিকে তাকিয়ে দল

নিউজ ক্রিকেট ২৪ ডেস্ক »

দলের আর সবার মতো শনিবার বাংলাদেশের ঐচ্ছিক অনুশীলনে উপস্থিত ছিলেন মুস্তাফিজও। দুবাই ক্রিকেট একাডেমি মাঠে রাত নয়টায় শুরু হওয়া এই নেট সেশনে অনেকটা সময় ধরে বোলিং করেন মুস্তাফিজ।

বাংলাদেশের বোলিং আক্রমণের তিনি মূল অস্ত্র। অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ছাড়া আর কেবল এই বাঁহাতি পেসারের আছে বিদেশের ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগের খেলার বড় অভিজ্ঞতা ও সাফল্য। তবে তার সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সে প্রত্যাশার সঙ্গে প্রাপ্তি মেলেনি প্রায়ই।

টি-টোয়েন্টিতে সবশেষ ১৪টি বোলিং ইনিংসে তার উইকেট স্রেফ ৯টি।

সবশেষ ১১ টি-টোয়েন্টির চারটিতে তিনি রান দিয়েছেন ওভারপ্রতি দশের বেশি। সবশেষ জিম্বাবুয়ে সফরে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ৪ ওভারে দিয়েছেন ৫০ রান! এর আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে দুটি টি-টোয়েন্টিতে দুটি টি-টোয়েন্টিতে তিনি উইকেটশূন্য ছিলেন খরুচে বোলিং করে।

অথচ তার কাছে দলের চাওয়া ম্যাচের নিয়ামক হয়ে ওঠা। পাওয়ার প্লেতে এক-দুই ওভার আর শেষের দিকের বোলিংয়ে তিনিই দলের সবচেয়ে বড় ভরসা। অনেক সময় তার ওভারগুলোই গড়ে দেয় পার্থক্য।

এশিয়া কাপেও মুস্তাফিজ নিজেকে খুঁজে না পেলে বাংলাদেশের সম্ভাবনায় তা হবে বড় চোট। হাবিবুল বাশারও তুলে ধরলেন সেই বাস্তবতা। আফগানিস্তান ও শ্রীলঙ্কার গ্রুপ থেকে পরের ধাপে যাওয়া বাংলাদেশের জন্য হবে বড় চ্যালেঞ্জ। দুবাইয়ে শুক্রবার দলের অনুশীলনের ফাঁকে গণমাধ‍্যমকর্মীদের মুখোমুখি হয়ে এই জাতীয় নির্বাচক বললেন, বাঁহাতি এই পেসারের সেরা ফর্ম দলের জন্য কতটা জরুরি।

“মুস্তাফিজ অবশ‍্যই আমাদের জন‍্য অত‍্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একজন বোলার। ওর পারফরম‍্যান্স দলের জয়-পরাজয়ে অনেকখানি প্রভাব ফেলে। ওকে ভালো ফর্মে, সেরা ফর্মে পাওয়াটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।”

“অতীতে কিন্তু মুস্তাফিজ অনেক ভালো ম‍্যাচ খেলেছে আমাদের জন‍্য। অনেক ভালো বোলিং করেছে। সব সময় তো আর ভালো পারফরম‍্যান্স হয় না, ওরও বাজে দিন গেছে। যেখানে আমরা ভুগেছি। তবে এটা হতেই পারে। আমি আশা করছি যে, এই টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই আমরা মুস্তাফিজের সেরাটা পাব। যেটা আমাদের জন‍্য খুব গুরুত্বপূর্ণ হবে প্রথম রাউন্ড পার হতে।”

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »