শিরোপা জিততে ইংল্যান্ডের চাই ২৪২ রান

https://scontent.fdac4-1.fna.fbcdn.net/v/t1.0-9/36386236_2027432020601594_1928619179817041920_n.jpg?_nc_cat=104&_nc_eui2=AeFY40879vpUlXD3TvLuwunYiYPt9keMWugjnmsYPL9A2_cQ-azY1GmWWQy36LFNFzNLAU2kdDYB9vV9Qwdjt7cfxuFbw0DGkcoiJ24B4pOm6Q&_nc_ht=scontent.fdac4-1.fna&oh=926e9b4229d9f6e3ffd66fe5510e3767&oe=5D672D33 »

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপের ফাইনালে প্রথমে ব্যাট করে ইংল্যান্ডকে ২৪২ রানের লক্ষ্য বেধে দিয়েছে নিউজিল্যান্ড।

ইনিংসের তৃতীয় ওভারে ক্রিস ওকসের করা বলে এলবিডব্লিউই এর আবেদন করে ইংল্যান্ড। তবে শুরুতেই রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান নিকোলাস। তবে ইনিংসের সপ্তম ওভারে আবারও ওকসের বলে এলবিডব্লিউ এর ফাঁদে পড়েন মার্টিন গাপটিল। ১৯ বলে ব্যক্তিগত ১৯ রানে বিদায় নেন এই ওপেনার। তবে ধীর গতিতে এগিয়ে যেতে থাকেন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন ও ওপেনার নিকোলাস। দুজন মিলে গড়েন ৭৪ রানের জুটি। লিয়াম প্লাঙ্কেটের বলে উইলিয়ামসন কট বিহাইন্ড হয়ে  ফিরে যাবার আগে ব্যক্তিগত রানের খাতায় যোগ করেন ৫৩ বলে ৩০ রান। উইকেটে থিতু হয়েও ইনিংস লম্বা করতে ব্যর্থ হন ওপেনার নিকলস। নিকলসের ব্যাট থেকে আসে ৭৭ বলে ৫৫ রান। আম্পায়ারের বিতর্কিত সিদ্ধান্তে খানিক পর বিদায় নেন অভিজ্ঞ রস টেলরও। তবে ইংলিশ বোলারদের দেখেশুনে খেলতে থাকেন জেমি নিশাম। সেটাও অবশ্য স্থায়ী হয়েছে কেবল ১৯ রান পর্যন্ত। তবে সবার থেকে আলাদা ছিলেন টম লাথাম। সবাই যখন নিচু গতির স্ট্রাইক রেটে ব্যাটিং করছিলেন তখন ৫৬ বলে ৪৭ রান করেন লাথাম। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ৫০ ওভারে কিউইদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ২৪১ রান।

বল হাতে এদিন দুর্দান্ত ছিলেন ইংলিশ বোলাররা। কিউই ব্যাটসম্যানদের চেপে ধরে রেখে স্বল্প ব্যয় করেন তারা। ক্রিস ওকস ৩৭ রানে ৩টি, প্লাঙ্কেট ৪২ রানে ৩টি, এছাড়া আর্চার ও মার্ক উড নেন ১টি করে উইকেট।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »