লড়াই করেই হারলো বাংলাদেশ

https://scontent.fdac4-1.fna.fbcdn.net/v/t1.0-9/36386236_2027432020601594_1928619179817041920_n.jpg?_nc_cat=104&_nc_eui2=AeFY40879vpUlXD3TvLuwunYiYPt9keMWugjnmsYPL9A2_cQ-azY1GmWWQy36LFNFzNLAU2kdDYB9vV9Qwdjt7cfxuFbw0DGkcoiJ24B4pOm6Q&_nc_ht=scontent.fdac4-1.fna&oh=926e9b4229d9f6e3ffd66fe5510e3767&oe=5D672D33 »

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ আসরের ২৬তম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার দেয়া ৩৮২ রানের বিশাল পাহাড় টপকাতে গিয়ে লড়াই করেই হেরেছে টাইগাররা। অজিদের বিপক্ষে মাশরাফি বাহিনী হার ৪৮ রানের ব্যবধানে।

অস্ট্রেলিয়ার দেয়া এই রান পাহাড় পার হতে গিয়ে শুরুতেই সৌম্য সরকারকে হারায় বাংলাদেশ। তামিম ইকবালের সাথে ভুল বুঝাবুঝির শিকার হয়ে ব্যক্তিগত ১০ রানে ফিরে যান সৌম্য। তামিম ইকবাল সাকিবের সাথে জুটি বেধে ধীর গতির ইনিংস খেলে স্কোরবোর্ডে যোগ করেন ৭৯ রান। ৪১ বলে ৪১ রান করে সাকিব প্যাভিলিয়নের পথ ধরলে বেশিক্ষন স্থায়ী হননি তামিমও। ৭৪ বলে ৬২ রানের ইনিংস খেলে মিচেল স্তার্কের বলে বোল্ড হন তামিম। অ্যাডাম জাম্পার স্পিন ঘূর্ণিতে এলবিডব্লিউ এর শিকার হন লিটন। এরপর অবশ্য ম্যাচ জমিয়ে তোলেন মুশফিকুর রহিম এবং মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। পঞ্চম উইকেট জুটিতে দুই ব্যাটসম্যান যোগ করেন ১২৭ রান। ৫০ বলে ৬৯ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে কোল্টার নাইলের বলে প্যাট কামিন্সের কাছে ক্যাচ দিলে ভাঙে জুটি। মাহমুদউল্লাহ আউট হবার পর মুশফিকুর রহিম ৯৫ বলে শতক পূরণ করে তিনি অপরাজিত থাকে ১০২ রানে। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের ইনিংস থামে ৩৩৩ রানে।

টস হেরে ফিল্ডিং করতে নামা বাংলাদেশের বোলিংটা শুরুতে খারাপ হচ্ছিল না। ইনিংসের পঞ্চম ওভারে ডেভিড ওয়ার্নারের ক্যাচ মিস করেন সাব্বির রহমান। তখন ব্যাট হাতে মাত্র ১০ রানে ছিলেন ওয়ার্নার। ফিঞ্চের সাথে ওয়ার্নারের এই জুটি গড়ায় ২১ ওভার পর্যন্ত। সব বোলাররাই যখন খাবি খাচ্ছিলেন ওয়ার্নার-ফিঞ্চের সামনে তখন পার্ট টাইম বোলার সৌম্য সরকারকে আনা হয় আক্রমণে। ২১তম ওভারে সৌম্য সরকারের বলে রুবেল হুসেনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ব্যক্তিগত ৫৩ রানে ফিরে যান অজি অধিনায়ক ফিঞ্চ। তিনে নামা উসমান খাজাকে নিয়ে আবারও ১৯২ রানের বিশাল জুটি গড়েন ওয়ার্নার। বাংলাদেশী বোলারদের একের পর এক বাউন্ডারি হাঁকিয়ে এদিন অজিদের রান পাহাড় বড় করতে থাকেন ওয়ার্নার। ১৪৭ বল মোকাবেলা করে ১৪টি চার ও ৫টি ছক্কার সাহায্যে ১৬৬ রানের বিস্ফোরক ইনিংস খেলেন ওয়ার্নার। ৭২ বলে ৮৯ রান আসে উসমান খাজার ব্যাট থেকে। পাশাপাশি ১০ বলে ৩২ রানের ক্যামিও খেলেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল।

বল হাতে এদিন সৌম্য সরকার ব্যতীত সব বোলাররাই ছিলেন খরুচে। ৮ ওভার বল করে ৫৮ রানের বিনিময়ে ৩ উইকেট নিয়েছেন সৌম্য। এছাড়া মুস্তাফিজ নিয়েছেন ১টি উইকেট। আর কোনো বোলার উইকেটের দেখা পাননি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »