লঙ্কানদের কাছে ধরাশায়ী হলো ইংল্যান্ড

https://scontent.fdac4-1.fna.fbcdn.net/v/t1.0-9/36386236_2027432020601594_1928619179817041920_n.jpg?_nc_cat=104&_nc_eui2=AeFY40879vpUlXD3TvLuwunYiYPt9keMWugjnmsYPL9A2_cQ-azY1GmWWQy36LFNFzNLAU2kdDYB9vV9Qwdjt7cfxuFbw0DGkcoiJ24B4pOm6Q&_nc_ht=scontent.fdac4-1.fna&oh=926e9b4229d9f6e3ffd66fe5510e3767&oe=5D672D33 »

এবারের বিশ্বকাপে প্রথম অঘটনের শিকার হল ইংল্যান্ড। লো স্কোরিং ম্যাচে শ্রীলঙ্কার কাছে ইংল্যান্ড হেরে বসেছে ২০ রানে।

টস জিতে শুরুতে ব্যাট করতে নামা শ্রীলঙ্কা প্রথমেই পড়ে ব্যাটিং বিপর্যয়ে। দলীয় ৩ রানেই দুই ওপেনার দিমুথ করুনারত্নে ও কুশল পেরেরাকে সাজঘরে ফেরত পাঠান জোফরা আর্চার এবং কিস ওকস। অভিসেকা ফার্নান্দো ও কুশল মেন্ডিস মিলে ৫৯ রানের জুটি গড়ে প্রাথমিক বিপর্যয় সামাল দেন। ফার্নান্দো ৩৯ বলে ৪৯ রানে ফিরে গেলে পুনরায় ইনিংস মেরামতের কাজে যোগ দেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। মেন্ডিসের সাথে মিলে ম্যাথিউস গড়েন ৭১ রানের জুটি। তবে এরপরই তাসের ঘরে পরিনত হয় লঙ্কানদের ব্যাটিং অর্ডার। মেন্ডিস ৪৬ রানে ফিরে যাবার পর ইংলিশ বোলারদের সামনে আর দাঁড়াতেই পারেনি বাকি ব্যাটসম্যানরা। অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস ইনিংস সর্বোচ্চ ৮৫ রান করে অপরাজিত থাকেন। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে লঙ্কানরা সংগ্রহ করে ২৩২ রান।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ইংলিশ শিবিরে আঘাত হানেন অভিজ্ঞ লাসিথ মালিঙ্গা। গোল্ডেন ডাক মেরে বেয়ারস্টো ফিরে যাবার পর থিতু হতে পারেননি জেমস ভিন্সও। ইয়ন মরগান এবং জো রুট মিলে ৪৭ রান করে প্রাথমিক বিপর্যয় সামাল দেয়ার পর দলীয় ৭৩ রানে ফিরেন অধিনায়ক মরগান। বেন স্টোকসের সাথে ফের জুটি বেধে এগুতে থাকেন রুট। ৮৯ বলে ৫৭ রান করে মালিঙ্গার শিকার হয়ে ফিরেন জো রুটও। তবে এরপর ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ৩ উইকেট নিয়ে ইংলিশদের বিপাকে ফেলে দেন। বেন স্টোকস এক প্রান্ত থেকে লড়াই চালিয়ে গেলেও যোগ্য সঙ্গের অভাবে শেষ পর্যন্ত দলকে জেতাতে পারেননি তিনি। স্টোকসের ব্যক্তিগত ৫৭ রানে মালিঙ্গার বলে ক্যাচ ফেলে দেন কুশল মেন্ডিস। তবে ম্যাচ জমিয়ে তুললেও সেটাকে আর কাজে লাগিয়ে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যেতে পারেননি তিনি। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৮২ রান করে অপরাজিত থাকেন স্টোকস। নির্ধারিত ৫০ ওভারের আগেই  রানে সবকয়টি উইকেট হারিয়ে ইংল্যান্ড গুটিয়ে যায় ২১২ রানে। ফলে ইংলিশরা শ্রীলঙ্কার কাছে ধরাশায়ী হয় ২০ রানে।

বল হাতে শ্রীলঙ্কার পক্ষে লাসিথ মালিঙ্গা একাই নেন ৪ উইকেট। অন্যদিকে ধনঞ্জয়া ডি সিলভার পকেটে যায় ৩টি উইকেট। ইসুরা উদানা ২টি এবং নুয়ান প্রদীপ নেন ১টি উইকেট।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »