রিয়াদের পাশাপাশি উইকেটের সমালোচনায় সাবেক পাকিস্তানিরা

মমিনুল ইসলাম »

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামের উইকেট সবসময়ই ব্যাটিং সহায়ক হয় অন্তত পূর্বের পরিসংখ্যান সে কথাই বলে। তবে পূর্বের ভিন্ন চিত্র দেখা গেছে বাংলাদেশ-পাকিস্তানের মধ্যকার টি-টোয়েন্টি ম্যাচের দুই ইনিংসেই। তাই তো উইকেটের এমন আচরণ দেখে অবাক হয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। শুধু মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ নয় উইকেটের সমালোচনা করেছেন শোয়েব আখতার, রশিদ লতিফ ও ইনজামাম-উল-হকের মত সাবেকরা।

ম্যাচ শেষে পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এসে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বলেন, ‘এটা ভালো একটা প্রতিদ্বন্দিতা ছিলো। তবে উইকেটের আচরণ আমাকে বেশ অবাক করেছে। শট খেলা খুবই কষ্টকর হয়েছিলো বিশেষ করে পুরাতন বলে শট খেলা খুবই কষ্টকর ছিলো।’

পাকিস্তানের সাবেক উইকেটরক্ষক ব্যাটসময়ান রশিদ লতিফ বলেন, ‘শীতে ভালো উইকেট বানানো একটু কঠিন। তবে পিসিবি চেষ্টা করলে এর থেকে ভালো উইকেট বানাতে পারতো যাতে কি না গড়ে ১৬০-১৭০ রান উঠে। আধুনিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ১৪০ রান খুবই কম। আর এমন ম্যাচে আহসান আলি ও হ্যারিস রউফদের বিচার করা যাবে না কারন বল ব্যাটে আসেনি ঠিকঠাক।’

উইকেট নিয়ে পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ইনজামাম-উল-হক বলেন, ‘আমার কাছে এটা কোনভাবেই টি-টোয়ান্টি ম্যাচ মনে হয়নি। পিচ কিউরেটরদের অনুরোধ করছি তারা যেন ভালো মানের উইকেট বানায়। মানুষ চার ছক্কার টি-টোয়েন্টি দেখতে আসে। এটা খেলার জন্য খুবই কঠিন ছিলো যেখানে কি না ১৪১ ই বিশাল লক্ষ্য মনে হচ্ছিলো।’

উইকেটকে নিম্নমানের আখ্যা দিয়ে শোয়েব আখতার বলেন, ‘আমাদের বানানো উইকেটটা খুবই নিম্নমানের উইকেট হয়েছে। মানুষ বড় ইনিংস দেখতে চায়। মানুষ এমন ম্যাচ দেখতে চায় যেখানে ২০০ রান হয়। বল ব্যাটসম্যানের ব্যাটে আসছিলো না। বোলাররা গতি পাচ্ছিলো না। গতি নেই আর বাউন্স ও নেই বলে। আর বলও একদম উঠছিলো না।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »