fbpx

‘রিজার্ভ ডে’ নিয়ে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করলো আইসিসি

https://scontent.fdac4-1.fna.fbcdn.net/v/t1.0-9/36386236_2027432020601594_1928619179817041920_n.jpg?_nc_cat=104&_nc_eui2=AeFY40879vpUlXD3TvLuwunYiYPt9keMWugjnmsYPL9A2_cQ-azY1GmWWQy36LFNFzNLAU2kdDYB9vV9Qwdjt7cfxuFbw0DGkcoiJ24B4pOm6Q&_nc_ht=scontent.fdac4-1.fna&oh=926e9b4229d9f6e3ffd66fe5510e3767&oe=5D672D33 »

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসর বসেছে ইংল্যান্ডে। দেড় মাস ব্যাপী এই টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছে বিশ্বের সেরা দশটি। লম্বা সময় ধরে টুর্নামেন্ট আয়োজন করা তো আর চাট্টিখানি কথা নয়। প্রতিটি ম্যাচের সাথে সংশ্লিষ্ট লোকজনের সংখ্যাও হাজার ছাড়িয়ে। তাই প্রতিটি ম্যাচেই যদি রিজার্ভ ডে রাখা হয় তাহলে হ্যাপা সামাল দেয়াও কঠিন হয়ে যাবে আইসিসির পক্ষে।

এদিকে এবারের বিশ্বকাপে ইতোমধ্যে বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত ম্যাচের সংখা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৩টিতে। সামনের ম্যাচগুলোতেও বৃষ্টি হানা দেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। অন্যদিকে বৃষ্টির কারণে ম্যাচ বাতিল হবার ফলে বেকায়দায় পড়ছে দলগুলো। পাশাপাশি পকেটের পয়সা খরচ করে ম্যাচ দেখতে যাওয়া দর্শকরাও ফিরছেন খালি হাতেই। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আইসিসিকে এক হাত নিচ্ছেন কেউ কেউ এই রিজার্ভ ডে না থাকায়।

এবার আইসিসির পক্ষ থেকে রিজার্ভ ডে না থাকার ব্যাখ্যা দিলেন আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভ রিচার্ডসন। তিনি বলেন, ‘প্রতিটি ম্যাচের জন্য যদি রিজার্ভ ডে রাখি তাহলে টুর্নামেন্টের দৈর্ঘ্য অনেক বেড়ে যাবে। তাহলে টুর্নামেন্টটা সুষ্ঠুভাবে আয়োজন করা কঠিন হয়ে যাবে। পিচ প্রস্তুত, দলগুলোর যাত্রা করার সময়, থাকার জায়গা, ভেন্যু যথ সময়ে পাওয়া, স্বেচ্ছাসেবক ও ম্যাচ অফিসিয়ালদের প্রাপ্যতা সহ ম্যাচ সরাসরি সম্প্রচার করা এসব কিছুর উপর প্রভাব পড়বে। তার চেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ন হল যারা অনেক দূর থেকে এসে খেলা দেখেন তাদের সমস্যায় পড়তে হবে। তাছাড়া যেদিন রিজার্ভ ডে রাখা হবে সেদিন যে বৃষ্টি হবে না এর নিশ্চয়তা নেই।’ 

উল্লেখ্য, বিশ্বকাপের প্রথম পর্বের ম্যাচগুলোতে রিজার্ভ ডে না থাকলেও সেমি ফাইনাল এবং ফাইনালেও রয়েছে রিজার্ভ ডে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »