রংপুরকে হারিয়ে জয়ের ধারায় ফিরলো রাজশাহী

দুর্জয় দাশ গুপ্ত »

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বঙ্গবন্ধু বিপিএলের সিলেট পর্ব শুরু হয়েছে আজ। আজকের দিনের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হয় রাজশাহী রয়্যালস ও রংপুর রেঞ্জার্স। রাজশাহীর দেওয়া ১৮০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই দলীয় অধিনায়ক ওয়াটসনের উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে রংপুর। ওয়াটসনের পরে ব্যর্থ হয়েছেন রংপুরের আরেক বিদেশি ক্রিকেটার ক্যামেরন ডেলপোর্টও। ২ চার ও এক ছক্কায় ৭ বলে ১৪ রান করে ফিরে যান তিনি। ওপেনিংয়ে নামা নাইম শেখও দলের হাল ধরতে হয়েছেন ব্যর্থ। প্যাভিলিয়নে যাওয়ার আগে নাইমের ব্যাট থেকে আসে ১৮ বলে ২৭ রান।

৩ উইকেট হারিয়ে যাওয়া রংপুরের হাল করেন ফজলে রাব্বি ও টম এবল। ৬৪ রানের দারুণ এক পার্টনারশিপে জয়ের স্বপ্ন দেখতে শুরু করে রংপুর। তবে আবারো পর পর ২ উইকেট হারালে ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় তারা। শেষ দিকে কিছুটা প্রতিরোধ গড়লে কেবল হারের ব্যবধানটাই কমেছে। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪৯ রান। ৩০ রানের জয় পায় রাজশাহী। এই হারে টুর্নামেন্ট থেকে অনেকটাই ছিটকে পড়লো রংপুর।

এর আগে সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে শুরুতে বল করার সিদ্বান্ত নেন রংপুরের অধিনায়ক শেন ওয়াটসন। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে ব্যাট চালাতে শুরু করেন রাজশাহীর দুই ওপেনার লিটন দাস ও আফিফ হোসেন। প্রথম দুই ওভারে স্কোরবোর্ডে যোগ করেন ২১ রান। তবে ভালো একটা শুরুর পরেও ইনিংস বড় করতে ব্যর্থ হোন রাজশাহীর দুই ওপেনার লিটন ও আফিফ। লিটনকে মুস্তাফিজ ও আফিফকে নবী ফিরিয়ে দিলে ম্যাচে ফিরে রংপুর। লিটন ১৫ বলে ৩ চারে ১৯ রান করে আউট হয়েছেন। আর শুরু থেকেই মারমুখী ভূমিকায় থাকা আফিফ ২ চার ও ৩ ছয়ে ১৭ বলে ৩২ রান করে নবীর বলে আউট হোন।

পরপর দুই ওভারে দুই রানের ব্যবধানে দুই ওপেনার ফিরে গেলে রান তুলার গতিটা একটু কমে যায় রাজশাহীর। তবে তৃতীয় উইকেট জুটিতে দেখে শুনে খেলতে থাকেন রাজশাহীর অধিনায়ক শোয়েব মালিক ও ইরফান শুক্কুর। ইনজুরির কারণে রাজশাহীর নিয়মিত অধিনায়ক আন্দ্রে রাসেল আজ খেলতে পারেন নি। তার পরিবর্তে আজ রাজশাহীর নেতৃত্ব দিয়েছেন অভিজ্ঞ শোয়েব মালিক।

ইনিংস বড় করতে ব্যর্থ হয়েছেন ইরফানও। একবার জীবন পাওয়া ইরফান ২০ বলে ২০ রান করে আরাফাত সানির বলে তাসকিনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন। তবে একপ্রান্ত আগলে রেখে খেলতে থাকেন রাজশাহীর অধিনায়ক শোয়েব মালিক। তবে সুযোগ বুঝে রংপুরের বোলারদের উপর চড়াও হতে গিয়ে তিনিও হয়েছেন ব্যর্থ। ৩১ বলে ৩৭ রান করে মুস্তাফিজের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হোন তিনি। শেষ দিকে বোপারার ঝড়ো ব্যাটিংয়ে রাজশাহীর সংগ্রহ দাঁড়ায় ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৭৯ রান। বোপারা ২৯ বলে ফিফটি তুলে নেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

রাজশাহী রয়্যালস: ১৭৯/৪ (আফিফ ৩২, মালিক ৩৭, বোপারা ৫ ; সানি ১/৪৫, ২/৪১)

রংপুর রেঞ্জার্স: ( নাইম ২৭, ফজলে রাব্বি ৩৪, এবল ২৯, নাওয়াজ ২/২১, মালিক ২/২৭)

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »