বোলিং কোচ হয়েও অলরাউন্ড সেবা দিচ্ছেন গিবসন!

মারুফ ইসলাম ইফতি »

দক্ষিণ আফ্রিকান বোলিং কোচ চার্ল ল্যাঙ্গাভেল্টের হঠাৎ বিদায়ের পর জাতীয় দলের বোলিং কোচ হিসেবে ক্যারিবিয়ান কোচ এটিস গিবসনকে নিয়োগ দেয় বিসিবি।নতুন দায়িত্ব নেওয়ার পরপরই পাকিস্তান সফর থেকেই দলের সাথে কাজ করেন গিবসন।কাগজে কলমে বিসিবির সাথে বোলিং কোচ হয়ে আসলেও দলের প্রয়োজনে মাঝেমধ্যে ব্যাটিং কোচ বণে যান এই কোচ।বোলিং কোচিংয়ের পাশাপাশি সমানভাবে ব্যাটিং কোচিংয়েও দক্ষতা আছে এই ক্যারিবিয়ান কোচের।আর তাই নিজের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে দলের প্রয়োজনে ব্যাটিংয়েও ক্রিকেটারদের সাহায্য করছেন এই কোচ।

টাইগারদের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো আগেই ধারনা দিয়েছিলেন গিবসনের ব্যাটিং কোচিং দক্ষতার সমন্ধে।
বোলিং কোচ হলেও গিবসনকে দেখা যাবে অলরাউন্ড কোচের ভূমিকায়।রাসেল ডমিঙ্গোর এমন আভাসের পর গতকাল প্রথমবারের মতো ব্যাটিং কোচের ভূমিকায়ও দেখা গেছে গিবসনকে।গতকাল থেকে শুরু হওয়া জাতীয় দলের কন্ডিশনিং ক্যাম্পের প্রথম দিনে লম্বা সময় ধরে তামিম ইকবালের সাথে কাজ করেছেন ব্যাটিং নিয়ে।

গিবসনের ব্যাটিং কোচিং নিয়ে পাকিস্তান সফরে যাওয়ার আগে দলের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো বলেছিলেন ” গিবসন কোচিংয়ে একজন অলরাউন্ডার প্যাকেজ।আমি ওকে অনেকদিন ধরে চিনি।সে দারুণ অভিজ্ঞতা সম্পূর্ণ একজন কোচ।তাই দলের প্রয়োজনে আমরা তার থেকে সবধরনের সেবা নিবো।

কোচ হিসেবে এটিস গিবসন যথেষ্ট অভিজ্ঞ।সাবেক এই ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার ২০০৭ সালে ইংলিশদের বোলিং কোচ হিসেবে কোচিং ক্যারিয়ার শুরু করেন।
পরবর্তীতে ২০১০ সাল থেকে টানা ৪ বছর নিজের জন্মভূমি ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রধান কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।২০১৪ সালে আবারো ইংলিশদের বোলিং কোচ হয়ে ইংল্যান্ডে যান গিবসন।২০১৭ সালে ইংলিশ শিবির ছেড়ে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রধান কোচ দায়িত্ব নেন গিবসন।২০১৯ বিশ্বকাপে গিবসনের অধিনে বাজেভাবে টুর্নামেন্ট থেকে দক্ষিণ আফ্রিকার বিদায় ঘন্টা বাজলে বিশ্বকাপের পর বহিষ্কার করা হয় গিবসনকে।এরপর মাঝের এই সময়টায় বিরতি নিয়ে এবার নিজের নতুন ঠিকানা বাংলাদেশে এসেছেন বোলিং কোচ হয়ে।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »