বাফুফে নির্বাচন ২০২০ : কেমন নেতৃত্ব চাই শীর্ষক সেমিনার

নিউজ ডেস্ক »

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলাদেশ ফুটবল সাপোর্টার্স ফোরামের (বিএফএসএফ) আয়োজনে বাফুফে নির্বাচন ২০২০ : কেমন নেতৃত্ব চাই শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। আজ মঙ্গলবার জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ ভবনস্থ পুষ্পদাম রেস্টুরেন্টে “বাফুফে নির্বাচন ২০২০: কেমন নেতৃত্ব চাই’ শীর্ষক সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন বিএফএসএফ সভাপতি কাজী শহীদুল আলম। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ফোরামের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন যুবায়ের।

দেশের ফুটবলের অভিভাবক সংস্থা বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। এই নিয়ে তিনবার সভাপতির দায়িত্বে আছেন সাবেক ফুটবলার কাজী সালাউদ্দিন। বাফুফে কার্যনির্বাহী পরিষদের নির্বাচন সামনে। ফের নির্বাচন করার কথা ভাবছেন তিনি। তবে বাড়ছে প্রতিদ্ব›দ্বী সংগঠকদের মাঝে উত্তেজনা। নির্বাচন এবং আগামী নেতৃত্ব নিয়ে সেমিনারের আয়োজন করে বিএফএসএফ।

সেমিনারে বক্তারা বলেন, ২০০৭ সাল থেকে পেশাদারিত্বের ছোঁয়া লেগেছে ফুটবলে। একযুগ পার হলেও এখনো পরিপূর্ণতা পায়নি পেশাদার লিগ। পাশাপাশি ক্লাবগুলোও পেশাদারি কাঠামোর আওতায় যেতে পারেনি। তাদের নেই নিজস্ব বিভিন্ন বয়সভিত্তিক দল। একাডেমি তো অনেক দূরে। ফলে তাদের এখনো নির্ভর করতে হয় প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে উঠে আসা ফুটবলারদের ওপর। জেলা পর্যায়ের সরবরাহের ধারাবাহিকতা রাখতে বাফুফের পক্ষ থেকে যে ধরনের উদ্যোগ নেয়া প্রয়োজন ছিল তা নেয়া হয়নি বলেই তাদের কার্যক্রম অনেকটাই সীমিত হয়ে পড়েছে। যার প্রভাবে ঢাকার ক্লাবে প্রতিভা সংকটের শুরু, এর সুদূরপ্রসারী প্রভাব পড়ছে জাতীয় দলে।

জেলা হোক আর ক্লাব হোক খেলোয়াড় যেখান থেকেই আসুক তারা একটা পর্যায়ে চলে যায় বাফুফের তত্ত¡াবধানে। কেননা আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ফুটবলাররা বাফুফের মাধ্যমেই দেশকে প্রতিনিধিত্ব করেন। ফলে জাতীয় পর্যায়ে সাফাল্যে তাদের প্রশংসা প্রাপ্তি হলেও ব্যর্থতার দায়ভারও তাদের নিতে হবে। আর বাফুফে তখনই সফলতার মুখ দেখবে, যখন এটি পরিচালিত হবে সঠিক নেতৃত্বে।

সভাপতির সমাপনী বক্তব্যে কাজী শহিদুল ইসলাম বলেন, বাফুফের নির্বাচনের পরই যারা দায়িত্বে আসবেন তাদের মাধ্যমেই পরবর্তী চার বছর পরিচালিত হবে দেশের ফুটবল। নেতৃত্ব নির্বাচনের মালিক হলেন কাউন্সিলররা। তারাই সিদ্ধান্ত নেবেন কাদের হাতে তারা তুলে দিবেন নেতৃত্বের ভার। আমরা সমর্থকরা চাইব যোগ্য ব্যক্তিরাই যেন বাফুফেতে আসেন পরবর্তী নির্বাচনে।

সেমিনারে সাবেক ফুটবলার আবদুল গাফফার, সাবেক জাতীয় ফুটবলার ও কোচ সোনালী অতীত ক্লাবের সভাপতি হাসানুজ্জামান বাবলু, ক্রীড়া বিশ্লেষক ইকরামুজ্জামান, জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত সংগঠক ও ক্রীড়াবিদ কামরুন নাহার ডানা, ঢাকা একাদশের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসান প্রিন্স, কুড়িগ্রাম ফুটবল একাডেমির সভাপতি জালাল হোসেন লাইজু, বিএসপিএ সভাপতি মোস্তফা মামুন, বাংলাদেশ অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশনের সাবেক সভাপতি আবদুস সালাম, জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার কোচ শফিকুল ইসলাম মানিক, শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরী, ফুটবল কোচ মহিবুর রহমান মিরাজ, বাফুফে নির্বাহী সদস্য ফজলুর রহমান বাবুল, বাফুফে নির্বাহী সদস্য অমিত খান শুভ্র, বাফুফে কাউন্সিলর মোজাম্মেল হক চঞ্চল ও একেএম নুরুজ্জামান দেশের ফুটবল সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিত্বরা, সংগঠক, কোচ, সাবেক খেলোয়াড় ও ক্রীড়া সাংবাদিকরা আলোচনা করেন। বক্তারা দেশের ফুটবলের অবনতি বিভিন্ন প্রেক্ষাপট, সাফে ব্যর্থতা ও ভবিষ্যৎ উন্নয়ন নিয়েআলোচনা করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »