বাংলাদেশি পেসারদের গতি কম ছিলো : গিবসন

সাজিদা জেসমিন »

ওটিস গিবসন বলেন পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানদের বিপদে ফেলার জন্য বাংলাদেশি পেসারদের গতি কম ছিলো।

গত শনিবার বাংলাদেশের নবম নিযুক্ত পেস বোলিং কোচ ওটিস গিবসন মন্তব্য করেন যে তার নেতৃত্বাধীন পেসারদের গতি কিছুটা কম ছিলো। তবে তিনি এটিও বলেন যে তাদেরকে পরিকল্পনা অনুযায়ী সাজিয়ে নিতে তিনি কিছুটা সময় নিচ্ছেন।

পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ চলাকালীন চার্লস ল্যাঙ্গেভেল্টের জায়গায় দু’বছরের চুক্তিতে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলে যোগ দিয়েছেন গিবসন। তার প্রথম কার্যভারে তিনি তার শীষ্যদের কার্যাবলী পর্যবেক্ষণ করছিলেন যে তারা কতোটা লড়াকু মানসিকতার।

দ্বিতীয় দিনের খেলার পর তিনি গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন – ‘আমি বসে বসে প্রতিটা মুহূর্তে তাদের প্রত্যেকটি মুভমেন্ট খেয়াল করছিলাম এবং বুঝার চেষ্টা করছিলাম তারা কোন কোন জায়গায় সক্ষম এবং কোথায় তাদের দুর্বলতা আছে, কেননা সব বুঝে শুনেই আমি কোথায় পরিবর্তন করতে হবে সেটি বুঝতে পারবো। আমি শুধুমাত্র তাদের ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করছি।’

‘আমরা তিনজন ভালো পেসার পেয়েছি, তবে তাদের নিয়ে আরো ভালো কাজ করতে হবে। আমি মনে করি তাদের যথেষ্ট প্রতিভা আছে, তবে গতির ক্ষেত্রে তাদের দুর্বলতা আছে। এবং কেউ কেউ আবার ১৩০-১৪০ গতিতে বল করে।’ – তিনি যোগ করেন। কন্ডিশন বোলারদের মানসিকতা পরিবর্তনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এ-ই ছেলেরা বাংলাদেশের ফ্ল্যাট পিচে বোলিং করে বড় হয়েছে।

‘আমরা তাদের অনুপ্রাণিত করার চেষ্টা করছি। যদি আমরা তাদেরকে বাংলাদেশের বাইরে ক্যাম্পিংয়ের জন্য নিয়ে যেতে পারি, তাহলে তারা বিশ্বের সর্বত্র বল কোথায় কিভাবে কাজ করছে সে ব্যাপারে তারা ধারণা নিতে পারবে। আজকে আপনারা দেখেছেন আমাদের বল পরিবর্তিত হচ্ছে৷ এই একটা স্কিল আমাদের আছে। তবে আমাদের গতিতে এবং শারীরিকভাবে সামান্য সমস্যা রয়েছে এবং এটি একটি জেনেটিক ব্যাপার। এ ব্যাপারে তাদের কিছু করার নেই। যদি তাদের কেউ ১৩০ গতিতে বল করতে পারে এবং আজকে তাদের যে গতি ছিলো তা যদি ধরে রাখতে পারে তবে তারা ভালো করবে।’

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »