পুরো টুর্নামেন্টেই থাকছে বিতর্কিত স্ট্যাম্প বেল

https://scontent.fdac4-1.fna.fbcdn.net/v/t1.0-9/36386236_2027432020601594_1928619179817041920_n.jpg?_nc_cat=104&_nc_eui2=AeFY40879vpUlXD3TvLuwunYiYPt9keMWugjnmsYPL9A2_cQ-azY1GmWWQy36LFNFzNLAU2kdDYB9vV9Qwdjt7cfxuFbw0DGkcoiJ24B4pOm6Q&_nc_ht=scontent.fdac4-1.fna&oh=926e9b4229d9f6e3ffd66fe5510e3767&oe=5D672D33 »

আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপের ১২তম আসরে আলোচিত ইস্যুগুলোর মধ্যে অন্যতম একটি হল স্ট্যাম্পের বেল। ইংল্যান্ডের কন্ডিশনে যেখানে চলছে পেস বোলারদের রাজত্ব সেখানে পেস বল স্ট্যাম্পে লাগার পরও পড়ছে না বেল!

এবারের বিশ্বকাপে একবার-দুবার নয় পুরো পাঁচবার ঘটেছে এমন ঘটনা। ফলে সমালোচনার তীরে বিদ্ধ হচ্ছে সর্বোচ্চ ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। আইসিসির সমালোচনায় যোগ দিয়েছিলেন খোদ বিরাট কোহলি ও অ্যারোন ফিঞ্চের মত ক্রিকেটাররা।

এবার আইসিসির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে স্ট্যাম্পের বেল পরিবর্তন করা হচ্ছে না। তাই পুরো টুর্নামেন্ট জুড়েই থাকছে এই বিতর্কিত স্ট্যাম্প বেল। আইসিসির পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়েছে এই স্ট্যাম্প ব্যবহৃত হয়ে আসছে গত বিশ্বকাপ থেকেই।

সম্প্রতি স্কাই স্পোর্টসকে দেয়া এক বিবৃতিতে আসিসির গভর্নিং বডি থেকে জানানো হয়, ‘টুর্নামেন্টের মাঝপথে এসে কোনোকিছু পরিবর্তন করতে চাই না আমরা। পুরো ৪৮টি ম্যাচেই দশ দলের জন্য একই সরঞ্জাম ব্যবহার করা হবে। প্রায় চার বছর ধরে এই স্ট্যাম্পগুলোর কোনো পরিবর্তন ঘটেনি।’

বিবৃতিতে আইসিসি আরও জানায়, ‘২০১৫ বিশ্বকাপ থেকেই স্ট্যাম্পগুলো বিভিন্ন খেলায় ব্যবহার হয়ে আসছে। তার মানে প্রায় এক হাজারেরও বেশি ম্যাচে ব্যবহার করা হয়েছে এই স্ট্যাম্পগুলো। এসব সমস্যা খেলারই অংশ। তাই ব্যাটসম্যানদের প্রতিরোধ ভেদ করতে বোলারদের আরও জোর প্রয়োগ করতে হবে।’

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »