পরীক্ষা-নিরীক্ষার ম্যাচ ছিল ভারতের বিপক্ষে

https://scontent.fdac4-1.fna.fbcdn.net/v/t1.0-9/36386236_2027432020601594_1928619179817041920_n.jpg?_nc_cat=104&_nc_eui2=AeFY40879vpUlXD3TvLuwunYiYPt9keMWugjnmsYPL9A2_cQ-azY1GmWWQy36LFNFzNLAU2kdDYB9vV9Qwdjt7cfxuFbw0DGkcoiJ24B4pOm6Q&_nc_ht=scontent.fdac4-1.fna&oh=926e9b4229d9f6e3ffd66fe5510e3767&oe=5D672D33 »

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশ্বকাপের বাছাই পর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামতে পারেনি বাংলাদেশ। দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচে প্রথমে ভারতকে ব্যাট করতে পাঠালে শুরুটা দারুণ করেন পেসাররা। মাত্র ১০৪ রানেই ভারতীয় চার ব্যাটসম্যানকে প্যাভিলিয়নে পাঠালে রানের গতি মন্থর হয় তাদের। আর এই সুযোগে টাইগার স্কোয়াডে থাকা বোলারদের নিয়ে পরীক্ষা চালানো শুরু করেন কোচ।

প্রথম ম্যাচে বোলারদের বিশেষ করে স্পিনারদের পরখ করার সুযোগ পাওয়া যায়নি। তাই এই ম্যাচেই সবাইকে দিয়ে বল করানো হয়েছে। আর শক্তিশালী ভারত সেই সুযোগ লুফে নিয়ে রান করেছে ৩৫০+। অন্যদিকে বাংলাদেশ দলের ব্যাটসম্যানরা ত্রিদেশীয় সিরিজে যথেষ্ট আশা জাগানিয়া ব্যাটিং করার পর ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে কিছুটা ব্যাক ফুটে ছিল।

প্রস্তুতি ম্যাচে দলের এমন পারফরম্যান্সের পর খুব বেশি চিন্তিত নন দলের স্পিন কোচ সুনীল যোশি। বোলারদের নিয়ে যে পরীক্ষা চালানোর দরকার ছিল সেটি হয়ে গেছে।

তিনি বলেন, ‘আয়ারল্যান্ডে আমাদের প্রস্তুতিটা ভালোভাবে সম্পন্ন করতে পেরেছিলাম। এখানে কন্ডিশনের সাথে মানিয়ে নিতে চাইলেও প্রথম ম্যাচটা বৃষ্টিতে খেলতে পারিনি। শক্তিশালী ভারতের বিপক্ষে আজ আমরা অনেক পরীক্ষা-নিরিক্ষা করেছি। এটা অনুশীলন ম্যাচ ছিল বলেই আমরা পরীক্ষা চালিয়েছি। ম্যাচের বিভিন্ন পরিস্থিতিতে আমাদের বোলাররা কেমন বল করে সেটা দেখতে চেয়েছিলাম। আমাদের সবাই ব্যাটিং এবং বোলিং করেছে। আমাদের এটাই প্রয়োজন ছিল।’

বোলিংয়ে সাকিব এবং রুবেলের প্রশংসা করে যোশি আরও বলেন, ‘শুরুর দিকে আমাদের বোলাররা ভালো করেছিল। ১০৪ রানে তাদের ৪ উইকেট নিতে সক্ষম হয়েছিল বোলাররা। এরপর সাকিব বোলিং করলে ম্যাচের মোড় ঘুরে যেতে পারতো। সাকিবের সাথে রুবেলও ভালো করছিল। ক্রিজে থাকা ধোনি ও রাহুল তখন ধীর গতির ব্যাটিং করছিল। আর আমরা তখনই বিভিন্ন বোলারদের দিয়ে পরীক্ষা চালাই।’

টাইগার ব্যাটসম্যানদের প্রতি আস্থার প্রকাশ করে কোচ জানান এমন উইকেটে বড় রান তাড়া করতে হলে পাওয়ার প্লে’র ওভারগুলো কাজে লাগানো জরুরি। ‘বড় রান তাড়া করতে হলে শুরুটা ভালো হতে হয়। পাওয়ার প্লেটা গুরুত্বপূর্ণ। এই ধরণের উইকেটে শুরুতে উইকেট না হারালে ৪০০ রানও তাড়া ক্রা সম্ভব।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »