নিজেকে বুড়ো ভাবি না: অ্যান্ডারসন

নিউজ ক্রিকেট ২৪ ডেস্ক »

কিছুদিন আগে বয়স পূর্ণ হয়েছে ৪০ বছর। তবে জেমস অ্যান্ডারসন যখন বোলিং করতে ছোটেন, তা বোঝার উপায় থাকে না। চল্লিশ পেরোনোর পর প্রথমবার টেস্ট খেলতে নামার আগে ইংল্যান্ডের অভিজ্ঞ পেসার নিজেও বলছেন, বয়স তার কাছে স্রেফ একটি সংখ্যা। এখনও দলকে তার অনেক কিছু দেওয়ার আছে বলে মনে করেন তিনি।

গত অ্যাশেজে ভরাডুবির পর দল পুনর্গঠন করে সামনে তাকানোর কথা বলে স্টুয়ার্ট ব্রডের সঙ্গে বাদ দেওয়া হয়েছিল অ্যান্ডারসনকে। বেন স্টোকস নতুন টেস্ট অধিনায়ক ও ব্রেন্ডন ম্যাককালাম কোচ হওয়ার পর ঘরের মাঠে নিউ জিল্যান্ড সিরিজ দিয়ে আবার দলে ফেরেন তারা।

নিউজিল্যান্ড ও ভারতের বিপক্ষে তিন টেস্টে ১৮.২৯ গড়ে অ্যান্ডারসনের প্রাপ্তি ছিল ১৭ উইকেট। এর মধ্যে এজবাস্টনে ভারতের বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে নেন পাঁচটি।

লর্ডসে বুধবার তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড। ২০০৩ সালে অভিষেক হওয়া অ্যান্ডারসন তার ১৭৩তম টেস্ট খেলতে নামবেন বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

টেস্ট ইতিহাসের সফলতম পেসার তিনি অনেক দিন ধরেই। ৬৫৭ উইকেট নিয়ে টেস্টের তৃতীয় সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি এখন। ১৯৯৪-৯৫ অ্যাশেজে গ্রাহাম গুচের পর ইংল্যান্ডের প্রথম বোলার হিসেবে চল্লিশ বা এর বেশি বয়সে টেস্ট উইকেট নেওয়ার হাতছানি তার সামনে।

সব মিলিয়ে চল্লিশ পেরিয়ে টেস্ট উইকেট নেওয়া সবশেষ পেসার ইংল্যান্ডেরই লেসলি জ্যাকসন, ১৯৬১ সালের জুলাইয়ে সেটিও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ।

অ্যান্ডারসন মঙ্গলবার সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বললেন, বয়স নিয়ে মোটেও ভাবেন না তিনি।

“বয়স নামের পাশে স্রেফ একটি সংখ্যা, আমি কেমন অনুভব করছি তা নয়। নিজেকে আমি বুড়ো মনে করি না বা মন্থর হয়ে যাচ্ছি বলে মনে হয় না। আমার কোনো ব্যক্তিগত লক্ষ্য নেই, শুধু ক্রিকেট উপভোগ করতে চাই। গত কয়েকদিন আমি দারুণ ছন্দে অনুভব করেছি। আশা করি, মাঠে সেটা দেখাতে পারব।”

“গ্রীষ্মের শুরুতে টেস্টের সময় বোলিং গ্রুপ হিসেবে আমাদের যেভাবে বল করতে বলা হয়েছিল তাতে আমি সত্যিই অনুপ্রাণিত হয়েছিলাম। এটি ছিল মানসিকতার পরিবর্তন। আমি আক্রমণাত্মক ক্রিকেট পছন্দ করি এবং এর অংশ হওয়ার জন্য মুখিয়ে আছি।”

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »