টানা দ্বিতীয় হার মোস্তাফিজের দিল্লির

নিউজ ক্রিকেট ২৪ ডেস্ক »

 

পেস বোলারদের দলে নেওয়ার ক্ষেত্রে এবারের নিলামে বেশ উপরের দিকেই ছিলো দিল্লি, লোকাল খালিল, সাকারিয়ার ছাড়াও তারা দলভুক্ত করে মোস্তাফিজ, নরকীয়া,লুঙ্গি এনগীডি কে।আজকের ম্যাচে দুই বিদেশি পেসার খেলায় দিল্লি, মোস্তাফিজের দুর্দান্ত বোলিং ঝলকের দিনে নরকিয়ার খরুচে বোলিংয়ে ম্যাচ হারতে হয়েছে দিল্লিকে।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের ১৫তম আসরের ১৫তম ম্যাচে দিল্লী মুখোমুখি হয়েছিল নতুন দল লক্ষ্ণৌ সুপার জায়ান্টসের। হাই ভোল্টেজ এই ম্যাচে দিল্লীকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে লোকেশ রাহুলের দল।ডিওয়াই পাতিল স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে দিল্লী জড়ো করে ১৪৯ রান, ৩ উইকেট হারিয়ে। পৃথ্বী শো এর ৩৫ বলে ৬১ রানের ইনিংস সত্ত্বেও মেলেনি কাঙ্ক্ষিত পুঁজি। অধিনায়ক রিশভ পান্ট ৩৬ বলে ৩৯ ও সরফরাজ খান ২৮ বলে ৩৬ রান করে অপরাজিত থাকেন। আসরে নিজের প্রথম ম্যাচ খেলতে নামা ডেভিড ওয়ার্নার ১২ বলে করেন মাত্র ৪ রান। লক্ষ্ণৌয়ের পক্ষে রবি বিষ্ণই শিকার করেন জোড়া উইকেট।

জবাবে ব্যাট করতে নামলে প্রথম ওভারেই মুস্তাফিজের মুখোমুখি হয় লক্ষ্ণৌ। একটি ওয়াইডসহ সেই ওভারে ৫ রান খরচ করেন মুস্তাফিজ। ষষ্ঠ ওভারে আবারও আক্রমণে আসেন কাটার মাস্টার, সেই ওভারে মাত্র ৩ রান খরচ করেন।অথচ অ্যানরিখ নরকিয়ার, কুলদীপ যাদবরা রান বিলিয়েছেন দেদারসে। অ্যানরিখ নরকিয়া খরুচে বোলিং করলেও ১৬তম ওভারে আবারও তার ওপর ভরসা করেন পান্ট। সেই ওভারে ইনিংসে নিজের দ্বিতীয় বিমার ছুঁড়ে বোলিং থেকে ছিটকে পড়েন। সেই ওভারের বাকি চার বলে কুলদীপ যাদব নিজের দ্বিতীয় উইকেটের দেখা পেলেও হজম করেন দুটি চার।

এতে ম্যাচ থেকে অনেকটাই ছিটকে পড়ে দিল্লী। ১৭তম ওভারে নিজের তৃতীয় ওভার বল করতে আসেন মুস্তাফিজ। যথারীতি নিয়ন্ত্রিত বোলিং দেখিয়ে সেই ওভারে মাত্র ৪ রান নেওয়ার সুযোগ দিয়েছেন লক্ষ্ণৌকে। আবারও বল হাতে নেন ১৯তম ওভারে, তখন ১২ বলে লক্ষ্ণৌয়ের প্রয়োজন ১৯ রান।তবে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে বাউন্ডারি আর কতক্ষণ ঠেকিয়ে রাখা যায়! সেই ওভারের তৃতীয় বলে মুস্তাফিজ হজম করেন ম্যাচে নিজের প্রথম ও একমাত্র বাউন্ডারি। ক্রুনালের সেই ছক্কায় ম্যাচ নিয়ন্ত্রণে চলে আসে লক্ষ্ণৌয়ের। সেই ওভারে ১৪ রান খরচ করলে ৪ ওভারে মোট ২৬ রান দাঁড়ায় মুস্তাফিজের খরচের খাতা।

শেষ ওভারে লক্ষ্ণৌয়ের প্রয়োজন ছিল ৫ রান। শার্দূল ঠাকুর একটি উইকেট পেলেও ম্যাচ জেতাতে পারেননি। ১৯.৪ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্ণৌ পৌঁছে যায় জয়ের বন্দরে। ৫২ বলে ৮০ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলা ডি ককের ইনিংস তাই বৃথা যায়নি।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »