জোর করে বিশ্বকাপ থেকে বাদ দেয়া হয়েছে শাহাজাদকে!

https://scontent.fdac4-1.fna.fbcdn.net/v/t1.0-9/36386236_2027432020601594_1928619179817041920_n.jpg?_nc_cat=104&_nc_eui2=AeFY40879vpUlXD3TvLuwunYiYPt9keMWugjnmsYPL9A2_cQ-azY1GmWWQy36LFNFzNLAU2kdDYB9vV9Qwdjt7cfxuFbw0DGkcoiJ24B4pOm6Q&_nc_ht=scontent.fdac4-1.fna&oh=926e9b4229d9f6e3ffd66fe5510e3767&oe=5D672D33 »

আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপে আহামরি ভালো দল হিসেবে অংশ নিচ্ছে না আফগানিস্তান। শক্তিমত্তার বিচারে অন্যান্য দলগুলো থেকে পিছিয়ে থাকলেও বিতর্ক সৃষ্টিতে তারাই যেন সেরা!

বিশ্বকাপ শুরুর আগে আফগানদের স্কোয়াড ঘোষণা করার সময় দলটির নিয়মিত অধিনায়ক আজগর আফগানকে বাদ দিয়ে নতুন অধিনায়ক করা হয় গুলবদিন নাইবকে। তখনই রশিদ খান, মোহাম্মদ নবীর মত ক্রিকেটাররা বিশ্বকাপে না খেলার ব্যাপারে সরব হয়ে ওঠে। সেই বিতর্ক ঠেলে দিয়ে বিশ্বকাপে অংশ নিলেও এবার নতুন বিতর্কের সৃষ্টি করলো আফগান ক্রিকেট বোর্ড। আফগানিস্তানের ওপেনার মোহাম্মদ শাহাজাদকে জোর করে দল থেকে বাদ দেয়ার অভিযোগ করেছেন তিনি।

বিশ্বকাপ শুরুর আগে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে ইনজুরিতে পড়েন শাহাজাদ। ফলে ম্যাচ না খেলেই মাঠ ছাড়তে হয় তাকে। তবে বিশ্বকাপের মূল পর্বে এসে শ্রীলঙ্কা ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামেন তিনি। ব্যাট হাতে অবশ্য ১ ম্যাচে খালি হাতে ফিরে যাবার পর অন্য ম্যাচে করেন মাত্র ৭ রান। শাহাজাদের দাবি বিশ্বকাপ থেকে তাকে জোর করে বাদ দেয়া হয়েছে। তার নেই কোনো ইনজুরিও।

আফগান এক সংবাদ মাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘আমি সম্পূর্ণ ফিট রয়েছি। আমার কোনো ইনজুরি সমস্যা নেই। আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে আমার সাথে কোনো প্রকার পরামর্শ না করেই জোর করে দল থেকে বাদ দিয়েছে আমাকে।’

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »