জিম্বাবুয়ে সিরিজই শেষ নয় মাশরাফির

মমিনুল ইসলাম »

ভারতের যুবাদের হারিয়ে যুব বিশ্বকাপ তুলে নিয়েছে টাইগার যুবারা। যুবা দলের এমন বিশ্বজয়ের আনন্দে ভাসছে পুরো দেশ। জুনিয়রদের এমন উৎসবের ডামাডোলে ঢাকা পড়ে গেছে পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্টে ইনিংস ব্যবধানে পরাজয়ের আলোচনা-সমালোচনা। তবে তা কেবলই ক্ষনস্থায়ী। বাংলাদেশের ক্রিকেটে সিনিয়রদের নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা হবে না তা কি করে হয়ে। এই তো আর মাত্র কদিন তাতেই শুরু হচ্ছে সিনিয়রদের নিয়ে আলোচনা। আসছে ১৫ তারিখ পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে ঢাকায় আসছে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল।

পূর্নাঙ্গ সিরিজ খেলতে যখন ঢাকায় আসছে জিম্বাবুয়ে তখনই আবারও আলোচনায় আসছে মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা। মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা নিঃসন্দেহে বাংলাদেশের ক্রিকেটের অন্যতম সেরা ক্যাপ্টেন। যার অধিনায়কত্বের সময়ে সবচেয়ে বেশি সফলতা পেয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। তবে ক্যারিয়ারের শেষলগ্নে এসে খাবি খাচ্ছে নিজের পারফরম্যান্স নিয়ে। বাংলাদেশের ওয়ানডে ক্রিকেট সামনে আসলেই যেন রাত দিন আলোচনার খরাক হয়ে দাঁড়ায় মাশরাফির অবসর ইস্যু। ক্রিকেট পাড়ায় আলোচনা চলে কবে থামবেন মাশরাফি?

জিম্বাবুয়ে আসার খবরে আবারও ক্রিকেট পাড়ায় আলোচনা চলবে মাশরাফির অবসর নিয়ে। বিসিএলের প্রথমদিনে দীর্ঘদিন পর বিসিবিতে পা রেখেছিলেন মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা। কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর সাথে এবারই প্রথম সাক্ষাৎ হলো মাশরাফির। তবে খুব একটা দীর্ঘায়িত হয়নি তাদের মিটিংয়ে সময়কাল। পরে এই মিটিং নিয়ে মুখ খুলতে রাজি হননি ডমিঙ্গো। তবে এটুকু নিশ্চিত ছিলো যে মাশরাফির অবসর ও ভবিষ্যত পরিকল্পনা জানতে চেয়েছিলেন রাসেল ডমিঙ্গো।

রাসেলের এমন প্রশ্নে কোন রাখ-ঢাক রাখেননি মাশরাফিও। তিনি জানিয়েছেন তিনি আরও খেলতে চান। আর অবসর নিয়ে তিনি বলেন আগে আপাতত ঢাকা ডিভিশন ক্রিকেট লিগ খেলতে চান তারপর এটা নিয়ে জানাতে চান। আর তাকে দলের হয়ে নির্বাচন করার ব্যাপারটা কোচ আর নির্বাচকদের উপরই ছেড়ে দিচ্ছেন মাশরাফি। তবে মনে হচ্ছে না জিম্বাবুয়ে সিরিজ দিয়ে থামছেন না ম্যাশ আর জিম্বাবুয়ে সিরিজে আগে অধিনায়ক পরিবর্তনের ঘোষণা দেয়নি বলে মাশরাফির কাধেঁই থাকছে অধিনায়কত্ব।

জিম্বাবুয়ে সিরিজ নিয়ে স্পষ্ট মাশরাফির ভাবনা। আসন্ন জিম্বাবুয়ে সিরিজকে সামনে রেখে গত দুই সপ্তাহ ধরে মিরপুরের হোম অফ ক্রিকেটে দেখা যাচ্ছে মাশরাফিকে। নিজেকে ফিট রাখতে খুব সকালে জিম ও রানিং করছেন মাশরাফি। তার একাকি চেষ্টা দেখে বোঝাি যাচ্ছে এখনই থামতে চান না মাশরাফি।

বিশ্বকাপে মলিন ছিলো মাশরাফির পারফরম্যান্স। ৮ ম্যাচে ৩০০+ গড়ে নিয়েছেন কেবল মাত্র ১ টি উইকেট। আর তাতেই আলোচনা শুরু হয়েছে মাশরাফির অবসর নিয়ে। বিশ্বকাপের পর থেকে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের জার্সিতে খেলতে নামেন নি মাশরাফি। শেষবার খেলেছেন বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে। তবে তাতেও সন্তোষজনক পারফরম্যান্স দেখাতে পারেননি মাশরাফি। ১৩ ম্যাচ খেলে নিয়েছেন মাত্র ৮ উইকেট। আর তাতেই মাশরাফির শেষ দুই প্রেস কনফারেন্সে আলোচনার প্রধান ইস্যু ছিলো কবে থামছেন মাশরাফি?

তবে মাশরাফি অটল রয়েছেন নিজের সিদ্ধান্তে। এখনই বাইশগজ ছাড়তে চান না মাশরাফি খেলতে চান ক্রিকেটটা যতদিন উপভোগ করেন। আর ঘটা করে বিদায় নেওয়ার খুব একটা আগ্রহ নেই মাশরাফির। তিনি বলেন, ‘ ফুলের তোড়া নিয়ে এসে আমাকে সবাই মাঠ থেকে দিবেন। এটা মনে হয় খুব একটা প্রয়োজনীয় না। আমার মনে হয় এটুকু স্বাধীনতা আছে আমি খেলতে চাই। কারও জোর করায় আমি কোন কিছু করবো না। একটা সময় ভাবতাম মাঠ থেকে করবো কি করবো না। তবে এখন মনে হচ্ছে প্রয়োজন নেই। ‘

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »