fbpx

ক্রিকেটারদের ফিটনেস নিয়ে কড়াকড়ি বিসিবির

https://scontent.fdac4-1.fna.fbcdn.net/v/t1.0-9/36386236_2027432020601594_1928619179817041920_n.jpg?_nc_cat=104&_nc_eui2=AeFY40879vpUlXD3TvLuwunYiYPt9keMWugjnmsYPL9A2_cQ-azY1GmWWQy36LFNFzNLAU2kdDYB9vV9Qwdjt7cfxuFbw0DGkcoiJ24B4pOm6Q&_nc_ht=scontent.fdac4-1.fna&oh=926e9b4229d9f6e3ffd66fe5510e3767&oe=5D672D33 »

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ক্রিকেটারদের ইনজুরি থাকবে সেটা খুবই স্বাভাবিক ব্যাপার। কিন্তু মাঠের ক্রিকেটে আনফিট ক্রিকেটার দিয়ে ম্যাচ খেলানো সুখকর না হলেও বাংলাদেস দলে হরহামেশাই দেখা যায় এমন দৃশ্য। গত বিশ্বকাপের কথাই ধরা যাক না। দলের একাধিক সিরনিয়র ক্রিকেটারদের ফিটনেস কখনও ছিল পঞ্চাশ ভাগ কারো আবার সেটা ছিল সত্তর ভাগ। এমন ফিটনেস নিয়ে বিশ্বকাপ মিসনে ভরাডুবি ঘটেছে বাংলাদেশ দলের। তবে ক্রিকেটারদের ফিটনেসের প্রতি এবার কড়াকড়ি করতে যাচ্ছে বিসিবি।

আফাগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট ম্যা ও ত্রিদেশীয় টি-২০ সিরিজকে সামনে রেখে ঈদের পর ১৮ আগস্ট শুরু হতে যাচ্ছে হাই পারফরম্যান্স ইউনিট ও আফাগানদের বিপক্ষে সিরিজের কন্ডিশনিং ক্যাম্প। যেখানে সদস্য সংখ্যা রাখা হয়েছে ৩৬ জনে। এখান থেকে শ্রীলঙ্কা ইমার্জিং দলের বিপক্ষে সিরিজের স্কোয়াড বেছে নেয়ার পাশাপাশি আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট স্কোয়াডও বেছে নেয়া হবে। অন্যদিকে ত্রিদেশীয় সিরিজের দল নির্বাচনও করা হতে পারে এই ক্যাম্প থেকেই।

প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু বলেন, ‘১৮ তারিখ কন্ডিশনিং ক্যাম্প শুরু হতে যাচ্ছে। প্রাথমিকভাবে আমরা ৩৬ জন ক্রিকেটারকে বাছাই করেছি যেখানে এইচপি দলের ১৫ জন রয়েছে। তারা শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে (ইমার্জিং দলের বিপক্ষে) ওয়ানডে খেলবে। তারপর চার দিনের ম্যাচও খেলবে তারা।’

টেস্ট এবং টি-২০ ফরম্যাটের জন্য ভিন্ন ভিন্ন বোলারের কথাও জানিয়েছেন নান্নু। ‘যে বোলার টেস্ট খেলবে তাকে আমরা টি-২০ ক্রিকেট থেকে দূরে রাখব। টেস্ট ক্রিকেটে বল করতে হলে তাকে অবশ্যই সামর্থ্যবান হতে হবে।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »