আমরা সবাই চার-ছক্কা মারতে পারি: বিজয়

নিউজ ক্রিকেট ২৪ ডেস্ক »

টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের রেকর্ড খুব একটা ভালো নয়। পরাজয়ের সংখ্যাই বেশি। এজন্য মূলত দায়টা ব্যাটারদের কাঁধেই বর্তায়। কারণ, আধুনিক ক্রিকেটের সাথে মিলিয়ে তারা পাওয়ারহিটিং করতে পারছেন না। তবে এই ধারণার সাথে দ্বিমত পোষণ করছেন ওপেনার এনামুল হক বিজয়। তার বিশ্বাস, দলের সবার চার-ছক্কা হাঁকানোর সামর্থ্য আছে।

বিজয় বিশ্বাস করেন, বাংলাদেশের ঘাটতিটা পরিকল্পনায়। পাওয়ার হিটিংয়ে পিছিয়ে নেই বাংলাদেশ। তার মতে, পাওয়ার হিটিং পরিকল্পনা ভালোমতো সাজাতে পারলেই ফলাফল আসবে। আর এতেই সাফল্যের দেখা মিলবে।

বিজয় বলেন, “আমি প্রায় ১০ বছর ধরে বিপিএল খেলছি, বাংলাদেশের হয়েও খেলেছি। আমার কাছে মনে হয়েছে, আমাদের যে মেধা আর পরিশ্রম তাতে পাওয়ার হিটিংয়ের চেয়ে পরিকল্পনা বেশি জরুরি। কেউ বলতে পারবে না দলের কেউ চার-ছক্কা মারতে পারে না বা সামর্থ্য নেই। শতভাগ সামর্থ্য নিয়েই বাংলাদেশ দলে খেলতে হয়। সবারই পাওয়ার হিটিংয়ের, চার-ছক্কা মারার কোয়ালিটি আছে।”

আমরা কোন বোলারকে পিক করব, কোন বোলারের বলে সিঙ্গেলস বের করব, কখন মারা উচিৎ কখন মারা উচিৎ না এসব বুঝতে হবে। ব্যাটারদের সবাই-ই কমবেশি মারতে পারে। তাদের নিজস্ব সময় দেওয়া উচিৎ। ১০ বল হোক, ৩-৪ বল হোক। এরপর চেষ্টা করলে প্রত্যেক খেলোয়াড়ের চার-ছক্কা মারার সামর্থ্য আছে।” – বিজয় যোগ করেন।

টি-টোয়েন্টিতে একটানা ব্যর্থ হওয়ায় দায়িত্ব থেকে বাদ দেয়া হয়েছে দলেী হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গোকে। এই জায়গায় নতুন কাউকে নিয়োগ না দেয়া হলেও দলের দায়িত্ব পেয়েছেন ব্যাটিং পরামর্শক শ্রীধরন শ্রীরাম। এই ভারতীয় কোচ এবং অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের হাত ধরেই বাংলাদেশ পাল্টে যাবে বলেই বিশ্বাস বিজয়ের।

তিনি আরও বলেন, “আমার মনে হয় না ক্রিকেটারদের হতাশ হওয়ার কিছু আছে। প্র্যাকটিসের মাধ্যমে উন্নতি সম্ভব। আশা করি এই কোচ, সাকিব ভাইর অধীনে আমরা যথেষ্ট উন্নতি করব পাওয়ার হিটিংয়ে। এটা প্রক্রিয়ার বিষয়, একদিনে হয়ে যাবে না। ৩ মাসে হবে, ৬ মাসে হবে। সবাই শতভাগ চেষ্টা করবে উন্নতি করার।”

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »