অবশেষে বিশ্বকাপে অজিদের স্বস্তির জয়-

নিউজ ক্রিকেট ২৪ ডেস্ক »

বিশ্বকাপের ১৪তম ম্যাচে (সোমবার) শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৫ উইকেটে জয় পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া।আসরে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে এসে প্রথম জয়ের স্বাদ পেল রেকর্ড পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়রা। বিপরীতে তিন ম্যাচের সবকটিতেই পরাজয়ের তিক্ত স্বাদ পেল ১৯৯৬ বিশ্বকাপ আসরের চ্যাম্পিয়নরা।

১৩০ বলে ১২৫ রানের উদ্বোধনী জুটির পরও ৪৩.৩ ওভারে ২০৯ রানে গুটিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। ৫২ রানে শেষ ৯ উইকেট হারায় দলটি। ৮৮ বল হাতে রেখে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় অস্ট্রেলিয়া।

চতুর্থ ওভারে ডেভিড ওয়ার্নার ও স্টিভেন স্মিথকে আউট জয়ে লঙ্কান শিবিরে লড়াইয়ের উত্তেজনা বাড়ান মাদুশনকা। দুজনই হন এলবিডব্লিউয়ের শিকার। তৃতীয় ও চতুর্থ উইকেটে দুটি ফিফটি জটিতে ম্যাচ পকেটস্ত করে অজিরা।

মার্শ-লাবুশেনের তৃতীয় উইকেট জুটি থেকে আসে ৬২ বলে ৫৬ রান। লাবুশেনকে মিডউইকেটে সহজ ক্যাচ বানিয়ে জুটি ভাঙেন মাদুশনকাই। ৫১ বলে ৯ চারে ৫২ রান করেন মার্শ।

লাবুশেন-ইংলিশ জুটি থেকে আসে ৮৬ বলে ৭৭ রান। ৫৯ বলে ৫৮ রান করে ভেল্লালাগের শিকার হন ইংলিশ।

গ্লেন ম্যাক্সওয়েল (২১ বলে ৩১) আর মার্কাস স্টয়নিসের (১০ বলে ২০) উত্তাল ব্যাট দ্রুত লক্ষ্যে পৌঁছে দেয়।

লক্ষ্ণৌয়ের ভারত রত্ন শ্রী অটল বিহারী বাজপেই একানা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাট বেছে নিয়ে শুরুটা দুর্দান্ত করে লঙ্কানরা। পাথুম নিশান্কা ও কুসল পেরেরা শুরুতে দেখেশুনে খেললেও সময় বাড়ার সাথে সাথে উত্তাল হতে থাকে তাদের ব্যাট। অস্ট্রেলিয়ার চিন্তা বাড়িয়ে একসময় বলের সাথে পাল্লা দিয়ে রান তোলা শুরু করেন দুই ওপেনার।

অস্ট্রেলিয়ার ঘুরে দাঁড়ানোর কারিগর স্পিনার অ্যাডাম জাম্পা। এই লেগ স্পিনার একাই নেন ৪৭ রানে ৪ উইকেট। ম্যাচসেরাও হন তিনিই। দুটি করে নেন প্যাট কামিন্স ও মিচেল স্টার্ক।

২২তম ওভারে প্রথম সফলতা এনে দেন অধিনায়ক কামিন্স। তার শর্ট বলে স্কয়ার লেগ থেকে নিশান্কার দারুণ ক্যাচ নেন ডেভিড ওয়ার্নার। ৬৭ বলে ৮ চারে ৬১ রান করেন নিশান্কা।

দ্বিতীয় উইকেটের জুটিও বড় হতে দেননি কামিন্স। পেরেরাকে বোল্ড করে দেন দলপতি। ৮২ বলে ১২টি চারে ৭৮ রান করেন পেরেরা।

১ উইকেটে ১৫৭ থেকে ২০৯ রানে গুটিয়ে যায় লঙ্কানরা। দুই ওপেনারের পর দুই অঙ্ক স্পর্শ করতে পারেন কেবল চারিথ আসালাঙ্কা। পাঁচে নেমে শেষ ব্যাটার হিসেবে তিনি গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের শিকার হন ৩৯ বলে ২৫ রান করে।

মাঝের সময়টাতে চলে জাম্পা তাণ্ডব। এই লেগ স্পিনার তিনজনকেই ফেলেন এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে। তার সাথে যোগ দেন স্টার্কও।

ম্যাচের ৩৩তম ওভারের শুরুতেই শুরু হয় বৃষ্টি। এরপর প্রায় ৩০ মিনিট খেলা বন্ধ ছিল। খেলা শুরু হওয়ার পর ৩১ রানে ৬ উইকেট হারায় শ্রীলঙ্কা।

আগামী শুক্রবার বেঙ্গালুরুতে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলবে অস্ট্রেলিয়া। পরের দিন লক্ষ্ণৌতে শ্রীলঙ্কার প্রতিপক্ষ নেদারল্যান্ডস।

 

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »