অবশেষে জয়ের দেখা পেল পাকিস্তান

https://scontent.fdac4-1.fna.fbcdn.net/v/t1.0-9/36386236_2027432020601594_1928619179817041920_n.jpg?_nc_cat=104&_nc_eui2=AeFY40879vpUlXD3TvLuwunYiYPt9keMWugjnmsYPL9A2_cQ-azY1GmWWQy36LFNFzNLAU2kdDYB9vV9Qwdjt7cfxuFbw0DGkcoiJ24B4pOm6Q&_nc_ht=scontent.fdac4-1.fna&oh=926e9b4229d9f6e3ffd66fe5510e3767&oe=5D672D33 »

টানা ১১ ম্যাচ হারের পর বিশ্বকাপের ষষ্ঠ ম্যাচে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জয় পেয়েছে পাকিস্তান। ইয়ন মরগানের দলকে তারা হারিয়েছে ১৪ রানে।

জিততে হলে রেকর্ড গড়তে হবে এমন সমীকরণ নিয়ে পাহাড়সম রান তাড়া করতে নামে ইংল্যান্ড। বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জেতার রেকর্ডটি আয়ারল্যান্ডের। ৩২৭ রান তাড়া করে ইংলিশদের বিপক্ষেই বিশ্বকাপে জয় পায় আইরিশরা। সেই রেকর্ড ভাঙতে গিয়ে শুরুতে দুই ওপেনার খুব বেশি সুবিধা করতে পারেননি। জেসন রয় ব্যক্তিগত ৮ এবং জনি বেয়ারস্টো ফিরেন ব্যক্তিগত ৩২ রানে। ব্যর্থ ছিলেন মরগান এবং স্টোকসও। তবে এরপর ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেয়া শুরু করেন দারুণ ফর্মে থাকা দুই ব্যাটসম্যান জো রুট এবং জস বাটলার। দুজন মিলে গড়েন ১৩০ রানের জুটি। ১০৪ বলে ১০৭ রানের ইনিংস খেলে শাদাব খানের বলে ফিরে যান রুট। বিশ্বকাপের এই আসরে প্রথম সেঞ্চুরি করেছেন তিনি। অন্যদিকে ৭৬ বলে ১০৩ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলে খানিক পর বিদায় নেন বাটলারও। লোয়ার অর্ডারে থাকা মঈন আলি, ক্রিস ওকস ও আর্চাররা ব্যাট হাতে ঝলক দেখাতে না পারলে শেষ পর্যন্ত  রানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে পাকিস্তান। টানা ১১ ম্যাচ হারের পর জয়ের মুখ দেখলো পাকিস্তান

বল হাতে ওয়াহাব রিয়াজ ৩টি, শাদাব খান ২টি, আমির ২টি, হাফিজ ১টি, মালিক নেন আটি করে উইকেট।

এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নামা পাকিস্তানকে শুভ সূচনা এনে দেন দুই ওপেনার ইমাম উল হক ও ফখর জামান। ৮৪ রানের ওপেনিং জুটি ভাঙে ৩৬ রানে মঈন আলির বলে ফখর জামান ফিরে গেলে। কিছুক্ষণ পর ফিফটি থেকে ৬ রান দূরে থেকে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন ইমামও। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা বাবর আজমের ব্যাট থেকে আসে ৬৬ বলে ৬৩ রানের ঝলমলে ইনিংস। রান পাহাড় গড়ার ক্ষেত্রে অবশ্য সবচেয়ে বেশি অবদান রাখেন মোহাম্মদ হাফিজ। অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার ব্যাট হাতে ৬২ বলের মোকাবেলায় খেলেন ৮৪ রানের বিধ্বংসী ইনিংস। শেষের দিকে অধিনায়ক সরফরাজের কাছ থেকে আসে ৫৫ রানের ইনিংস। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে পাকিস্তান স্কোরবোর্ডে জমা করে ৩৪৮ রানের পাহাড়।

বল হাতে ক্রিস ওকস ৩টি, মঈন আলি ৩টি এবং মার্ক উড নেন ২টি করে উইকেট।

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »