fbpx

অনায়াসেই ৩০০ ছোঁবেন রোচ বিশ্বাস ওয়ালসের

নিউজ ডেস্ক »

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সাবেক ক্যারিবিয়ান পেসার কোর্টনি ওয়ালশ বিশ্বাস করেন কেমার রোচকে ৩০০ উইকেট পেতে বেশি বেগ পেতে হবে না, অনায়াসেই তিনি ছুঁয়ে ফেলবেন ৩০০ উইকেটের মাইলফলক। ইনজুরি পথে বাঁধা হয়ে না দাঁড়ালে খুব সহজেই ৩০০ উইকেট এর মাইলফলক ছুঁবেন এই ক্যারিবীয় পেসার।

মহামারী করোনার তোপে চারমাস ধরে মাঠের বাইরে ক্রিকেট। আগামীকাল উইন্ডিজ ইংল্যান্ড টেস্ট দিয়ে মাঠে ফিরতে যাচ্ছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। এই ম্যাচে ৭ উইকেট পেলেই রেকর্ড বইয়ে নাম উঠবে বর্তমানে ক্যারিবীয় পেস বোলিং কে নেতৃত্ব দেওয়া কেমার রোচের। আর মাত্র ৭ উইকেট পেলেই ৯ম ক্যারিবীয় বোলার হিসেবে ২০০ উইকেট এর কোটা পূরণ করবেন রোচ। প্রথম ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ক্রিকেটার হিসেবে কার্টলি অ্যামব্রোস ছুয়েছিলেন এই মাইলফলক। ১৯৯৪ সালে এই মাইলফলক স্পর্শ করার পরে তিনি থামেন ৪০৫ উইকেট নিয়ে। দ্বিতীয় বোলার হিসেবে ২০০ উইকেট নেওয়া কোর্টনি ওয়ালশ পরবর্তীতে ছড়িয়ে গিয়েছিলেন অ্যামব্রোস কে। ক্যারিয়ার শেষে ওয়াশের উইকেট সংখ্যা দাঁড়ায় ৫১৯, যা কোন ক্যারিবিয়ান বোলারের পক্ষে সর্বোচ্চ। এরপর আরো ৬ জন বোলার টেস্ট ক্রিকেটে ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ২০০ উইকেট নেওয়ার কীর্তি গড়েছেন।

মোট ৮ জন এই মাইলফলক ছুলেও গত ২৬ বছরে কোন ক্যারিবিয়ান টেস্ট ক্রিকেটে ছুঁতে পারেননি ২০০ উইকেটের মাইফলক। ২৬ বছর পর এসে রোচ যখন আবারো ২০০ উইকেটের সামনে দাড়িয়ে তখন তাকে নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করাটা অস্বাভাবিক কিছু নয়। রোচের ২০০ উইকেটের মাইলফলকের বিষয়ে উচ্ছাস প্রকাশ করে সাবেক পেসার কোর্টনি ওয়ালশ বলেন , ‘দুর্দান্ত এক মাইলফলক এটি। আরেকজন ওয়েস্ট ইন্ডিয়ানকে এই বন্ধনীতে পাওয়া দারুণ ব্যাপার। কেমার সবসময়ই আমার বন্ধু, আমি ওর জন্য খুব খুশি। ওর মাইলফলকের অপেক্ষায় তর সইছে না আমার।’আশা করি, খুব বেশি সময় লাগবে না ওর এই পথটুকু যেতে। সিরিজের প্রথম টেস্টেই যদি করে ফেলতে পারে, তাহলে দারুণ হবে। কারণ এরপর ও নির্ভার থেকে টেস্ট সিরিজ উপভোগ করতে পারবে।’

২০০৯ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেকের নিয়েছিলেন ৬ উইকেট, পরের ম্যাচে আবারো তুলে নিলেন ৭ ব্যাটসম্যানকে। এরপরে ভালো খারাপ সময় মিলিয়ে নিজেকে দাঁড় করিয়েছে বর্তমান সময়ের ক্যারিবিয়ান সেরা টেস্ট বোলার হিসেবে। ওয়ালশ এর ভাষ্য মতে, ‘সে এমন একটা পর্যায়ে পৌঁছেছে, যেখানে সে নিজের খেলাটা বোঝে, জানে কী করতে চায় এবং কীভাবে এগোতে হয়। যেদিন এটা কাজে লাগে, সেদিন ফল মেলে। এখন সে জানে, কীভাবে একজন ব্যাটসম্যানকে ফাঁদে ফেলার জন্য তৈরি করতে হয়। ওর ধৈর্য এখন অনেক অনেক ভালো।’

রোচের ৩০০ উইকেট এর সম্ভাবনা নিয়ে ওয়ালশ বলেন, ‘ওয়ার্কলোড ব্যবস্থাপনা নিয়ে ভাবতে হবে।ওয়ার্কলোড ব্যবস্থাপনা ঠিকঠাক হলে সে অনায়াসেই ৩০০ উইকেট পেয়ে যাবে।’

নিউজক্রিকেট/সুফিয়ান

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »