২০১১ বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচ তদন্ত করবে লঙ্কান সরকার

নিউজ ডেস্ক »

বেশ কয়েকদিন ধরে ক্রিকেট পাড়ায় উত্তাপ ছড়াচ্ছে শুরুটা করেছেন শ্রীলঙ্কার সাবেক ক্রীড়া মন্ত্রী। তিনি বলেন ২০১১ সালের ফাইনাল ম্যাচ পাতানো ছিল। এই ঘটনায় নড়েচড়ে বসেছে শ্রীলংকান সরকার। তারা এবার এই ফাইনাল ম্যাচ তদন্ত করছে।

২০১১ সালের বিশ্বকাপের ফাইনালে নিয়ে নানা অভিযোগ আছে। অনেকেই তখন সন্দেহের তীর তুলেছিল এই ম্যাচকে নিয়ে। তখনকার দলের সদস্য মুত্তিয়া মুরালিধরন টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের পক্ষে ছিলেন না। তিনি এ সিদ্ধান্তকে পছন্দ করেননি। এরপর শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি আর্জুন রানাতুঙ্গা এই ম্যাচে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন। তাদের পর এবার সরাসরি ম্যাচ পাতানোর কথা বলেছেন তখনকার শ্রীলংকার ক্রীড়া মন্ত্রী মহিন্দানন্দ আলুথগামাগ।

তার এই ম্যাচ পাতানোর অভিযোগের ভিত্তিতেই তদন্ত নেমেছে শ্রীলঙ্কান সরকার। তারা বিষয়টি কোনভাবে হালকাভাবে নেয়নি। তবে সেই বিশ্বকাপে থাকা দুই সিনিয়র ক্রিকেটার মাহেলা জয়াবর্ধনে ও অধিনায়ক কুমার সাঙ্গাকারা এই বিষয়টি উড়িয়ে দিয়েছে।

কুমার সাঙ্গাকারা তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখেন, ‘নিজের সব প্রমাণ নিয়ে আইসিসি ও আইসিসির তদন্ত কমিটির কাছে যাওয়া উচিত। সেখানে অভিযোগের পূর্ণ তদন্ত হতে পারে।’

সেই ফাইনালে সেঞ্চুরি করা মাহেলা জয়াবর্ধনে লিখেন, ‘নির্বাচন কি খুব কাছে? মনে হচ্ছে কেন সার্কাস হচ্ছে। নাম ও প্রমাণ কই?’

এর আগে তখনকার শ্রীলংকার ক্রীড়া মন্ত্রী মহিন্দানন্দ আলুথগামাগ বলেন, ‘২০১১ সালের ফাইনাল ম্যাচটি আমরা বিক্রি করে দিয়েছি। এটা পাতানো ম্যাচ ছিল। সেসময় আমি ক্রীড়ামন্ত্রী ছিলাম তার পরেও আমি বলছি। দেশের সাথে আমি নাম প্রকাশ করছি না। ভারতের সাথে সে ম্যাচে আমরা জেতার পথে ছিলাম।’

নিউজক্রিকেট/রীম

নিউজটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »